গল্পটা অন্যরকম হতে পারতো

গল্পটা অন্যরকম হতে পারতো,

তোমার  আমার দুটি জীবনের।

দুটি দিকে বেকে না গিয়ে,

একটি সরল পথে মিলিত হতে পারতো।

নির্জন নিস্তব্ধ গহীন বনের পথটিতে

তুমি আমি দুজন,,

মাথার উপর দুজনার একটি নীল আকাশ,

একটি লাল সূর্য, পশ্চিমে হেলে যাওয়া।

গন্তব্যহীন পথে,দুজনের একি দিকে হেটে যাওয়া,

একি উদ্দেশ্যে হারিয়ে যাওয়া।

 

কিন্তু তোমার একরোখা মনোভাব,

আমার প্রতি উদাসীনতা,অবহেলা,

ভালবাসাকে অবমূল্যায়ন করা,

এক রকম আমি বাধ্যই হয়েছি,

তোমার থেকে দূরে সরে আসতে।

আর তুমি! আমি দূরে চলে যাচ্ছি দেখেও

পেছন ফিরে ডাকলে না?

রাগে অভিমানে আমি, এক রকম পন করে বসেছিলাম যে,

না, আর ফিরব না তোমার দুনিয়ায়।

কষ্ট গুলোকে মনের ভিতর, পাথর চাপা দিয়ে রাখব,

ভালবাসি ভালবাসি বলে আর গলা ফাটাবো না,

তোমাকে একনজর দেখার জন্য আর ছুটে যাবো না,

তোমার বাড়ির আঙ্গিনায়।

 

সত্যিই দেখো আর ফেরা হয়নি।

আর দেখাও হয়নি, তোমার-আমার।

দুজনার দুটি ভিন্ন জীবনের, ভিন্ন গল্প তৈরি হয়েছে।

 

অথচ তুমি চাইলেই-

ছন্নছারা বাধন হারা পানকৌড়িটাও নীরে ফিরতো।

একই সময়, একই পৃথিবীতে,আমদের সন্ধ্যা নামতো।

আমাদের এক আকাশেই চাঁদের দেখা মিলতো।

একটাই লক্ষী পেঁচা, শিমুলের ডালে বসে থাকতো।

হাসনাহেনার গন্ধে হাজার বছরের, রাতের গভীরতা বাড়তো।

দুজানার চারপাশে একই জোনাকিরা মিটিমিটি জ্বলতো।

অকৃত্রিম এক স্বর্গ সুখে,

আমাদের রাতটা ভোর হতো।

 

 

 

 

0
0
  

বাংলায় মতামত দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না *

*


*

বাংলায় লেখার জন্য Phonetic এ ক্লিক করুন

Protected by WP Anti Spam