কষ্ট দিওনা-২


(উৎসর্গ : সুবর্ণাকে)

*****************************************
বলতে পারো তুমি আমাকে কতোটুকু ভালোবাসা দিয়েছো !
আমি জানি তুমি তা পারবে না
তুমি তা কখন ও হিসাব করে দেখনি-
তোমার তা নেই জানা,
তুমি আমায় বলতে পারো
তুমি আমায় অনেক ভালোবাসা দিয়েছো
অনেক সুখ দিয়েছো
নাকি আমাকে এর থেকে বেশী দেয়া তোমাকে ছিল মানা ।

আমার কাছে তোমার সে ভালোবাসা সরিষার দানার মতো-
পেট্রোল বোমায় সারা শরীর পুড়ে জ্বলার মতো-
নগ্ন নারীর ঘৃণিত বিশ্রী দেহের মতো –
এ পৃথিবীতে মানুষ যে বস্তু বা প্রাণীকে ঘৃণা করে তার মতো ।

সত্যিই বলছি তবুও আমি তোমায় ভালবেসে যাচ্ছি-
নিস্তব্ধ আঁধার রাত…দু-চোখে কিছু দেখা যায়না
তুমি আমার বুকে জড়িয়ে আছো
এ পৃথিবীতে শুধু তুমি আছো আমি আছি
কোন মানব নেই-
মানবী নেই-
কোন বস্তু নেই-
আমার মনের ভাবনায়- আর যে টুকু ঘুমাই সে স্বপ্নেতে
দু-চোখে শুধু তোমাকেই দেখতে পাচ্ছি ।

সত্যিই বলছি তবুও আমি তোমায় ভালোবেসে যাচ্ছি-
গভীর সাগরে হঠাৎ পরে যাওয়ার মতো-
অথবা মরুভূমির মাঝে হারিয়ে যাওয়ার মতো-
সুন্দর বন কিংবা এর থেকে ও বড় গভীর অরণ্যে হারিয়ে যাওয়ার মতো
তুমি আছো আমি আছি; আমি শুধু একাকি তোমাকেই পাচ্ছি ।

বলতে পারো তুমি আমাকে কতোটুকু ভালোবাসা দিয়েছো !
আমি জানি তুমি তা পারবে না
যতোবারই আমি তোমাকে ভালবাসতে কাছে আসি
ততোবারই তুমি আমায় ঘৃণা করে যাও,
যেন এ পৃথিবীর সব থেকে নোংরা বস্তু আমি
এ পৃথিবীর সব থেকে ঘৃণিত পুরুষ আমি তোমার কাছে
সে সব ভেবে আমার চোখে প্রতিবারই আসে জল
তুমি দেখেও তা- এড়িয়ে যাও সব সময়
আমার কষ্ট আর চোখে জল দেখে- নাকি বল তুমি সুখ পাও ।

তোমাকে পাওয়ার আগেও আমার স্বপ্ন ছিল
আসা ছিল মনে ,
আমি কাউকে আমার করে চাই সে তুমিও জানতে
জীবন দিয়ে ভালোবাসবে আমায়
চলবে পথ আমার কথায়
আমার ব্যথাতে তার চোখে আসবে জল
আমি কাঁদলে সেও কাঁদবে আমার ব্যথায়
দেখা হয় যেন এমন কারো সনে ।

সেই আজ তুমি এলে-
ভালোবাসো আমায় বলেছিলে-
সোনা জানি খাঁটি হয় পোড়ালে আগুনে-
সে কারণেই হয়তো !
তোমার ভালোবাসায় আমাকে পুড়িয়ে খাঁটি করার চেষ্টা
বসন্তের এই প্রথম ফাগুনে ।

কাছে ও এসেছো-
ভালো ও বেসেছো –
আপন করে তোমার বুকে দিয়েছো ঠাই ,
সেই আবার তুমিই আমায় কাঁদাও-
রাগে অনুরাগে আমার থেকে দূরে ও চলে যাও-
কখন ও ভেবে দেখেছো ! কতো কষ্ট যে আমি তাতে পাই ।

হয়তো তোমার আমাকে বোঝার ভুল-
অতীতে হারিয়েছো বলে কূল –
মনে রেখো আমি তোমার থেকে দূরে সরে দাঁড়াবো না
এ দেহে প্রাণ থাকবে যতোদিন তোমার থেকে হারাবোনা ।

তুমি আমায় ঘৃণা করবে করো
আমি তোমার ঘৃণাকে ভালবাসবো-
তুমি আমায় কষ্ট দেবে দাও
আমি তোমার কষ্টকে ভালোবাসবো
তুমি আমায় কান্নার জল দেবে দাও
আমি সে জল স্বাদরে গ্রহণ করবো
তুমি আমায় মৃত্যু দেবে দাও
আমি সে মৃত্যু বিধাতার কারণে বলে ধরবো ।

আমি সব সময়ই তোমার সুখ চাই
আমার বুকে তোমার মাথা রাখো,
মন থেকে মুছে ফেলো তোমার অতীত সব;
আজ থেকে তোমার মনে আমার ছবি আঁকো ।

যদি তুমি তোমার সৃষ্টি কর্তাকে বিশ্বাস করো
তবে তুমি আমাকেও বিশ্বাস করতে পারো-
যদি তুমি তোমার ধর্মকে বিশ্বাস করো
তবে তুমি আমাকেও বিশ্বাস করতে পারো-
যদি তুমি তোমার বাবা মাকে বিশ্বাস করো
তবে তুমি আমাকেও বিশ্বাস করতে পারো-
বিশ্বাস করতে পারো তোমাকে আমার ভালবাসার কথা,
সত্যি বলছি তোমার আচারণেই আমি ভীষণ কষ্ট পাই
পাই ভীষণ ব্যথা ।

তুমি আমাকে ভালবাসবে বলে-
আমার সারা শরীরে কলঙ্কের কালি দিলে লেপে
যে কালি এ পৃথিবীর কোন কিছুতে ধোয়ার নয়-মোছার নয়,
আমি ও তোমার কথাতে দিয়েছিলাম সায়
বুঝতে পারিনি তোমার ভালোবাসা পাওয়া এতোটা কঠিন;
এক পৃথিবীর নয়-হাজার পৃথিবীর সিমার বাইরের কষ্ট আর যন্ত্রণা আমায় দেবে-
আমার এ দেহটাকে তিলে তিলে করে দেবে ক্ষয় ।

মানুষ যেমন চারা রোপণ করে ফলের আশায়-
চাতক যেমন বসে থাকে মেঘের আশায়-
ঠিক তেমনি আসা করে আমি ও তোমায় ভালোবেসে যাচ্ছি,
আজ না পেলাম তোমার ভালোবাসা-
কাল না পেলেম তোমার ভালোবাসা-
কোন একদিন পাবো; সে আসাতে সুখ ভেবে সব খাচ্ছি ।

যে দিন ভাঙ্গবে তোমার ঘুম-
মনে পরবে আমি তোমার কপালে দিয়েছিলাম চুম-
সব ভুলে প্রতিবারই আমি তোমায় কাছে নিয়েছি টেনে,
যে দিন জ্ঞান তোমার ফিরবে-
আমি ছাড়া কেউ না কাছে ঘিরবে-
জানি ভালবাসবে আমায়- তোমার বুকে নেবে টেনে ।

তুমি সাক্ষী রাখবে রাখো
তোমার যাকে ইচ্ছে ; যা ইচ্ছে তাঁকে,
মসজিদ নাকি বিধাতা নাকি কোরআন
নাকি বল তোমার বাবা মাকে ।

আমি পাইনা কোন ভয়-
তোমার ভালবাসাকে করবোই জয়-
আমি নিশ্চিত পারি বলতে বারবার,
আমি তোমার উপর দাবি করতে পারি-
যখন তখন তোমায় ধরে মারতে পারি-
তাতে হয় না ভাল মনের কারবার ।

তোমার কষ্টরা সব দূরে চলে যাক
আনন্দ আর সুখ আসুক ফিরে,
ভুলে যেওনা তখন তুমি আমায়
আড়াল করে রেখো আমায় ভালোবাসায় ঘিরে ।

তুমি আমার একটি অক্ষর
তুমি আমার একটি শব্দ
তোমায় নিয়ে লিখতে পারি আমি কবিতা হাজার ,
তুমি আমায় ধ্বংস করতে পারো
তুমি আমায় সৃষ্টি করতে পারো
গড়তে পারো আমার মাঝে তোমার স্বর্গের বাজার ।

আজ তোমাকে তোমার মাথায় হাত রেখে বলতেই হবে
কিংবা শ্রেষ্ঠ ধর্ম কোরআন ছুঁয়ে
কি কষ্ট কি যন্ত্রণা তোমার মনে ,
তোমার পোড়ে সামান্য-আমায় পোড়ায় অনেক
তোমায় কাঁদায় সামান্য -আমায় কাঁদায় অনেক
তুমি দেখেও দেখনা! দ্যাখে লোকজনে ।

যদি বল আমার কষ্ট তোমার ভাবনা -
যদি বল আমার মৃত্যু তোমার কামনা-
যদি বল আমায় কষ্ট দিতে ভালো লাগে
যদি বল আমায় যন্ত্রণা দিলে সুখ জাগে ।

মাঝে মাঝে আমি এমন ভাবনায়
সত্যি সত্যিই ভীষণ পাগল হয়ে যাই
আমার মৃত্যু তুলে দেবো তোমার হাতে,
পরে কি হবে আমার
তা নিয়ে আমি কখন ও ভাবিনা
তুমি কাঁদবে কি না ভাবি
তোমার চোখে দু-ফোঁটা জল আসবে কি না ভাবি
নাকি ফেলে দিবে আমার দেহ খানা
লোকের আড়ালে একাকী গভীর রাতে ।

মনে রেখো ভালোবাসি ভালবাসবো
অপেক্ষায় রব চিরদিন তোমার তরে,
ভুলতে পারবেনা আমার প্রেম জানি
শেষ জীবনে হলেও মুন্না আসবে আমার ঘরে ।

-সমাপ্ত-

* কাউকে কষ্ট দিয়ে সুখে থাকার আশা করাটা বোকামি ছাড়া আর কিছুই নয়,
মনে রেখো এর থেকেও অনেক গুণ বেশী কষ্ট তোমার জন্য অপেক্ষা করছে ।

-হযরত উমর (রা)

তারিখ : ২৬/০২/২০১৫ ইং ।

+1
0
  

বাংলায় মতামত দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না *

*


*

বাংলায় লেখার জন্য Phonetic এ ক্লিক করুন

Protected by WP Anti Spam